মেনু নির্বাচন করুন

গ্রাম আদালত

২নং কিশমত গনকৈড় ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালতের প্রধান হলো চেয়ারম্যান । তিনি সকল বিধিমালা মেনে বিচার কার্য পরিচালনা করে থাকেন ২নং কিশমত গনকৈড় ইউপির আদালত সপ্তাহে এক দিন বসে থাকে  । প্রতি মঙ্গলবার আদালত বসে থাকে ।

 

উদেশ্য:১৯৭৬সালেগ্রামআদালতঅধ্যাদেশেরমাধ্যমেইউনিয়নপরিষ্যদগুলোকেবিচারসাম্পাদনেরদায়িত্বদেওয়াহয়েছে।বিচারপদ্ধতিরসান্তিপূণনিস্পত্তিওবিচারকাযব্যাবস্থাসহজকরারউদ্দেশ্যেগ্রামআদালতসৃস্টিকরাহয়েছে।

 

গঠন: চেয়ারম্যান, বাদী ও বিবাদী পক্ষের ২ জন করে মোট ৫ জন নিয়ে গ্রাম আদালত গঠিত হয়।

গ্রাম আদালতের এখতিয়ার: ইউনিয়ন পরিষদ ফৌজদারী ও দেওয়ানী এই ২ ধরনের মামলার বিচার করতে পারবে।

গ্রাম আদালতের স্থান নিবাচন: যে ইউনিয়নে এলাকার অপরাধ সংঘটিত হয়েছে সে ইউনিয়নে গ্রাম আদালত গটিত হয়।

গ্রাম আদালতের ক্ষমতা: সবোচ্চ ৫.০০০ টাকা ক্ষতি পূরনের মামলা করতে পারে।

গ্রাম আদলকের সিদ্ধান্ত: মামলার রায় প্রকাশ্য ঘোষনা করতে হবে।রায় ৫/৪ ভোটে হলে আপিল করা যাবে না আর ৩/২ ভোটে হলে আপিল করা যাবে।